নামী ব্র্যান্ডের বোতলের জলেও মহা বিপদ! নয়া গবেষণায় চাঞ্চল্য

দুষণের মাত্রা বেড়ে চলেছে চারপাশে। এই অবস্থায় অন্য সব কিছুর মতো পানীয় জলেও বাড়ছে দূষণ। এই পরিস্থিতিতে ব্র্যান্ডেড বোতলের জল, যাকে বলা হয় পরিশ্রুত পানীয়, তাই খেয়ে নিশ্চিন্ত থাকতে চান অনেকেই। কিন্তু সাম্প্রতিক এক গবেষণায় উঠে এসেছে মারাত্মক দাবি। গবেষকরা জানাচ্ছেন, পরিশ্রুত জলের মধ্যে মিলেছে প্লাস্টিক কণা! যা শরীরের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকারক।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, স্টেট ইউনিভার্সিটি অফ নিউ ইয়র্ক-এর গবেষক শেরি ম্যাসন কাজ করেন মাইক্রোপ্লাস্টিক নিয়ে। ভারত, চিন, ব্রাজিল, ইন্দোনেশিয়া, কেনিয়া, লেবানন, মেক্সিকো, থাইল্যান্ড এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র— এই ন’টি দেশ থেকে সংগৃহীত বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মোট ২৫০ টি জলের বোতল পরীক্ষা করে দেখেন ম্যাসন ও তাঁর সঙ্গীরা। এবং সবিস্ময়ে লক্ষ করেন, ৯৩ শতাংশ নমুনাতেই মিলেছে প্লাস্টিক কণা!

গবেষণাপত্রে দাবি করা হয়েছে, বোতলের ঢাকনি তৈরি করা হয় যে উপাদানগুলি দিয়ে, যেমন পলিপ্রপাইলিন, নাইলন ইত্যাদি বোতলের জলের নমুনার মধ্যে রয়েছে।গবেষকদের ধারণা, সম্ভবত যখন বোতলে জল ভরা হয়, তখনই ওই মিশ্রণ ঘটেছে।গবেষক ম্যাসনের মতে, বোতলের জলের নমুনা পরীক্ষা করে তাঁদের ধারণা হয়েছে সাধারণ কলের জল এর থেকে অনেক বেশি নিরাপদ! অন্য দেশগুলির নামী ব্র্যান্ডগুলির মতো এদেশেরও বেশ কিছু অত্যন্ত নামী সংস্থা রয়েছে তালিকায়।

————————————————
কবিরাজঃ তপন দেব’এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে নারী ও পুরুষের যাবতীয় গোপন রোগ সহ যে কোন রোগের চিকিৎসা দেওয়া হয়। এবং দেশেও বিদেশে ঔষধ পাঠানো হয়।যোগাযোগ”””””””ঢাকা””খিলগাও””মোবাইল””০১৮২১৮৭০১৭০”””””
””””””

চলতি মাসে কয়েকটি অঞ্চলে বন্যার আশঙ্কা

মৌসুমি বৃষ্টিপাতের প্রভাবে চলতি মাসে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল এবং দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে স্বল্প ও মধ্য মেয়াদের বন্যা হতে পারে। এ ছাড়া বঙ্গোপসাগরে এক থেকে দুটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কাও আছে। দীর্ঘমেয়াদে পূর্বাভাস দেওয়ার লক্ষ্যে গঠিত আবহাওয়া অধিদপ্তরের বিশেষজ্ঞ কমিটি এ আভাস দিয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরে গতকাল কমিটির বৈঠক হয়। তাতে সভাপতিত্ব করেন অধিদপ্তরের পরিচালক ও বিশেষজ্ঞ কমিটির চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন আহমেদ। কমিটির প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি মাসের প্রথমার্ধের মধ্যে সারা দেশে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু বিস্তার লাভ করতে পারে। মৌসুমি বৃষ্টিপাতের কারণে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল এবং দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের কিছু স্থানে স্বল্প থেকে মধ্যমেয়াদি বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে। দেশের অন্যান্য স্থানে নদ-নদীর প্রবাহ স্বাভাবিক থাকবে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের তিন মাসের এ পূর্বাভাস প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জুলাই মাসের প্রথমার্ধে সুরমা, কুশিয়ারা, তিস্তা, ব্রহ্মপুত্র অববাহিকাসহ দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ভারি বর্ষণ হতে পারে।অবশ্য চলতি মাসের শুরু থেকেই মৌসুমি বায়ু চট্টগ্রাম, সিলেট, ঢাকা ও ময়মনসিংহ অঞ্চলে বিরাজ করেছে। এর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টিপাত হচ্ছে। গত মাসে সারা দেশে স্বাভাবিকের চেয়ে ১৪.৩ শতাংশ বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*