নাটোরে ঘাস কাটতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার ২ সন্তানের মা

নাটোরে ঘাস কাটতে- সারাদেশে প্রতিনিয়ত ধর্ষনের ঘটনা ক্রমেই বেড়ে চলেছে।ধর্ষণের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না নিজের মেয়েও।ধর্ষণকে অপরাধই মনে হচ্ছে না লম্পটদের কাছে। লম্পটদের লালসার শিকার হচ্ছে দেশের হাজারো নারীও শিশু ।এর জন্য আত্মহত্যার পথ বেচে নেয় অনেক কিশোরি।এবার ধর্ষনের শিকার হলেন ২ সন্তানের মা । জানা গেছে

নাটোরের লালপুরে কাজিপাড়া গ্রামে মাঠে ছাগলের জন্য ঘাস কাটতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন দুই সন্তানের জননী। এ ঘটনায় হেলাল নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার কাজিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।আটককৃত একই গ্রামের ইসমত আলীর ছেলে হেলাল (৩০)।

এ বিষয়ে লালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জুয়েল এ ঘটনা সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর একজনকে আমরা শুক্রবার রাতেই গ্রেফকার করেছি । আর ভুক্তভোগী ওই নারীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য নাটোর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ সময় পুলিশ অরও বলে, ভুক্তভোগী ওই নারী একজন গরীব ভ্যানচালকের স্ত্রী। তিনি বাড়ির পার্শ্ববর্তী মাঠে ছাগলের খাবারের জন্য ঘাস সংগ্রহ করতে গেলে। এ সময় হেলাল মহিষ চরাচ্ছিল। তিনি ওই নারীকে একা পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ বিষয়ে নারীর স্বামী ধর্ষকের বিরুদ্ধে লালপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ শুক্রবার রাতেই অভিযান চালিয়ে ধর্ষক হেলালকে গ্রেফতার করে।ধর্ষক হেলাল এখন কারাগারে অবস্থান করছে। তাকে আদালতে হস্তান্তর করা হবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*