পর্দায় অন্তরঙ্গ হও, তাহলে বাস্তবে কী সমস্যা?

খোলামেলা চরিত্রে অভিনয়ের জন্য বলিউডের পরিচিত মুখ মল্লিকা শেরাওয়াত। এক দশক আগে তিনি এই ইন্ডাস্ট্রিতে শরীরী আবেদন ছড়িয়ে তুমুল জনপ্রিয়তা পান। বিশেষ করে ‘মার্ডার’ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে তার জনপ্রিয়তা তুঙ্গে পৌঁছায়।

অভিনয়ে সব ধরণের চরিত্রেই সাবলিল ছিলেন বলে বিপাকে পড়েছিলেন মল্লিকা। সবার মনে ধারণা জন্মে যে, পর্দায় যেমন মল্লিকা খোলামেলা রূপে দেখা দেন, তেমনি বাস্তবেও তার সঙ্গে অন্তরঙ্গ হওয়া সহজ। এই সুযোগ কাজে লাগাতে চেয়েছিলেন অনেক পরিচালক, প্রযোজক ও নায়ক। এমনটাই জানালেন মল্লিকা শেরাওয়াত।

এক সাক্ষাত্কারে মল্লিকা বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ, সেটা অনেকটা এরকম যে, কেউ যদি ছোট স্কার্ট পরে, পর্দায় চুম্বন করে, তাহলে তার কোনো নৈতিকতা নেই।

তিনি আরো বলেন, আমাকে অনেক প্রোজেক্ট থেকেই বাদ দেওয়া হয়েছে। কেননা, নায়করা ভাবত, ‘আমার সঙ্গে অন্তরঙ্গ হতে অসুবিধা কোথায়? তুমি তো পর্দায় অন্তরঙ্গ হও, তো বাস্তবে কী সমস্যা?’ এভাবে আমি অনেক প্রোজেক্টে কাজের সুযোগ হারিয়েছি। আসলে এটাই আমাদের সমাজের দর্পণ। মহিলাদের এ দেশে এসবেরই মুখোমুখি হতে হয়।

মল্লিকা ভাষ্যে, আমি সবসময় মাথা উঁচু করে চলি। আমি আপোস করতে পারি না। আমার আত্মমর্যাদা রয়েছে। এমনও অনেক সময় হয়েছে, যখন পরিচালকরা আমাকে ফোন করে বলেছে, ভোর তিনটের সময় এসো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*