পপুলারকে ২৫ লাখ টাকা জরিমানা

রাজধানীর বেসরকারি পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ভোক্তাদের সঙ্গে প্রতারণা করার অভিযোগে ২৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার দুপুর একটা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত ধানমন্ডি-২ নম্বর সড়কে প্রতিষ্ঠানটিতে অভিযান চালিয়ে এই আদেশ দেন। অভিযানে র‌্যাব-২ ভ্রাম্যমাণ আদালতের পাশাপাশি অংশ নেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের একটি দল।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম। তিনি বলেন, দুই বছর আগের মেয়াদোত্তীর্ণ রি-এজেন্ট, ডেট পরিবর্তন করে ঢাকার বাইরের জেলাগুলোতে পাঠানো এবং ভোক্তাদের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগে এ জরিমানা করা হয়।

ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, ‘আমাদের কাছে ময়মনসিংহ থেকে একটা অভিযোগ ছিল যে, সেখানকার পপুলারে ঢাকার মেয়াদউত্তীর্ণ রি-এজেন্ট পাঠানো হতো। বাক্সের গায়ের ২০১৬ সালের মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ বদলে তারা নতুন করে ২০১৮ সাল লিখত। এখানে অভিযানে এসে আমরা মারাত্মক ত্রুটি খুঁজে পাই।’

‘তাদের ল্যাবের মেশিনের ভেতরে, স্টোররুমে বিপুল পরিমাণ রি-এজেন্ট পাই। এদের কোনটির মেয়াদ ২০১৬ সালে কোনটির ২০১৭ সালে শেষ হয়েছে।’ রি-এজেন্ট মেয়াদত্তীর্ণ হলে পরীক্ষায় সঠিক রোগ ধরা পড়তে নাও পারে। আর এই প্রতিবেদনের ওপর চিকিৎসা হলে চিকিৎসাও ভুল হতে বাধ্য।”

সারওয়ার আলম বলেন, ‘তারা (পপুলার) ভোক্তার সঙ্গে প্রতারণা করছে। এ কারণে তাদের ২৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*