গুরুতর অসুস্থ খালেদা জিয়াকে সরকার চিকিৎসা দিচ্ছে না: লন্ডনে মির্জা ফখরুল

0
687

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ হলেও সরকার তার চিকিৎসার কোন ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করছে না। অবিলম্বে তার সুষ্ঠু চিকিৎসার ব্যবস্থা নিতে হবে। কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করে এসে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা শারীরিক অবস্থার যে বিবরণ দিয়েছেন তা গভীর উদ্বেগের। সরকার খালেদা জিয়াকে দেশে আটকে রেখেছে একটা কারণে। সরকার চাচ্ছে, নেত্রীকে কারাগারে আটকে রেখেই কীভাবে জীবনাবসান ঘটানো যায়। বেগম খালেদা জিয়া পড়ে গিয়েছিলেন, হোঁচট খেয়ে পড়ে যাননি। অসুস্থতার কারণে পড়ে গিয়েছিলেন। খালেদা জিয়াকে পুরোনো নির্জন কারাগারের স্যাঁতসেঁতে পরিবেশে আটকে রেখে, চিকিৎসা না দিয়ে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে।

স্থানীয় সময় রবিবার সন্ধ্যায় পূর্ব লন্ডনের হাইস্ট্রিট নর্থ এর দি রয়্যাল রিজেন্সি হোটেলের হল রুমে যুক্তরাজ্য বিএনপি আয়োজিত এক ইফতার ও দোয়া মাহফিলে মির্জা ফখরুল একথা বলেন। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমদ।

মির্জা ফখরুল বলেন, শুধু একটি মাত্র কারণে আমি লন্ডনে এসেছি। নেতার সঙ্গে কথা বলার জন্য, নেতার দিকনির্দেশনা নেওয়ার জন্য। দেশ এক মহাসংকটে নিপতিত, গণতন্ত্র শৃঙ্খলিত। দেশের মাটি ও মানুষের নেত্রী, গণতন্ত্রের মা আজ কারাগারের অন্ধকার প্রকোষ্ঠে বন্দি। এ অবস্থায় আমাদের প্রিয় নেতার নির্দেশনা নিতে লন্ডনে এসেছি।

বাধা-বিপত্তি আসবে, সংগ্রাম করে যেতে হবে মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বিএনপির দুর্দিনে আমাদের একজন নেতাকর্মীকেও নিজেদের দলে টেনে নিতে পারেনি সরকার। আমরা খুব আশাবাদী, দেশে জাতীয় ঐক্য তৈরি হবে। আমাদেরও ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আমরা সেই দিনের অপেক্ষায় আছি, যেদিন খালেদা জিয়া কারামুক্ত হবেন এবং তারেক রহমান বীরের বেশে দেশে ফিরবেন।

দেশে মানুষ আতঙ্কে কথা বলতে পারছে না অভিযোগ তুলে তারেক রহমানকে উদ্দেশ্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আন্দোলনের মধ্য দিয়ে, নানা ঘাত-প্রতিঘাত সহ্য করে আপনি নেতার আসনে আসীন হয়েছেন। আপনার চলার পথ মোটেই কসুমাস্তীর্ণ ছিল না। আপনার দিকে দেশবাসী প্রত্যাশা নিয়ে তাকিয়ে আছে। দেশকে এই ধ্বংস স্তূপ থেকে তুলে আনার দায়িত্ব আপনাকেই নিতে হবে।

সরকারের বিরুদ্ধে দমন-পীড়নের অভিযোগ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, শুধু বিএনপি নয়, সারা দেশের মানুষ একটা শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থায় আছে। এই অবস্থা থেকে উত্তরণে যুক্তরাজ্য বিএনপির নেতাকর্মীদেরও সক্রিয়তা প্রত্যাশা করেন তিনি। খারাপ অবস্থায়ও ভেঙে না পড়ার আহ্বান জানান মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, হতাশার কোনো কারণ নেই। রাত্রির পরেই হবে নতুন সূর্যোদয়।

জানা গেছে, গত শুক্রবার লন্ডনে পৌঁছার পর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে বিএনপি মহাসচিব একাধিকবার বৈঠক করেছেন। মির্জা ফখরুল গত ৩ জুন প্রথমে ব্যাংককে যান। সেখানে চিাকৎসা শেষে যান লন্ডনে।

বিজ্ঞাপন...

কবিরাজ: তপন দেব ।

নারী-পুরুষের সকল জটিল ও গোপন রোগের চিকিৎসা করা হয়। দেশে ও বিদেশে ওষুধ পাঠানো হয়।

আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন - ০১৮২১৮৭০১৭০ (সময় সকাল ৯ - রাত ১১ )

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here