রাশিয়ায় মেসিদের জন্য ৩ টন খাবার পাঠাল আর্জেন্টিনা!

রাশিয়া বিশ্বকাপের আর বাকী মাত্র ৫ দিন। এখনও রাশিয়ার মাটিতে পা রাখেনি আর্জেন্টিনা দল। তবে তাদের সবরকম সুবিধা আগেভাআগেই নিশ্চিত করতে ৩ টন খাবার পাঠিয়ে দিয়েছে আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (এএফএ)। আজ শনিবার রাশিয়ায় পা রাখার কথা রয়েছে আর্জেন্টিনা দলের। এরপর মস্কো থেকে ২৫ মাইল দূরের শহর ব্রোনিৎসিতে অনুশীলন শুরু করবে শিরোপা প্রত্যাশী দলটি।

বিশ্বকাপের আসরে প্রতিটি দলই খাবার নিয়ে খুঁতখুঁতে থাকে। ভুল করে কিংবা উপাদেয় খাবার না পেয়ে এমন কোনো খাবার কেউ খেতে চায় না; যে কারণে তার মাঠে নামা বন্ধ হয়ে যায়। আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনও কোনো ঝুঁকি নেয়নি। রাশিয়ায় পা রেখেই যাতে মেসি-হিগুয়েইন যেন তাদের দেশের প্রচলিত খাবারই খেতে পারেন সে জন্যই আগেভাগে খাবার পাঠানো হয়েছে। রাশিয়ায় আর্জেন্টিনার কূটনৈতিক রিকার্দো লাগোরিও বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

তো কী ধরণের খাবার এসেছে মেসিদের জন্য? রিকার্দো লাগোরিও জানিয়েছেন, আর্জেন্টিনায় প্রচলিত প্রায় সব খাবার যেমন- গরু, শূকর, সেদ্ধ করা কনডেনসড মিল্ক ইত্যাদি পাঠানো হয়েছে। যার সম্মিলিত পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩টন! ব্রোনিৎসিতে রাজসিক সব সুবিধা পাবে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। পাঁচতারকা হোটেল, অনুশীলনের জন্য ফুটবল মাঠ, সাঁতার ও ব্যায়ামের জন্য অলিম্পিক সাইজ সুইমিং পুল, স্টিম বাথের ব্যবস্থা থাকছে।
==
মেসি তারকা হলেও ম্যারাডোনার ধারেকাছে নেই : রিভালদো

কেউ তাকে বলছেন এই যুগের ম্যারাডোনা; আবার কেউবা পেলে-ম্যারাডোনাকে ছাপিয়ে সর্বকালের সেরা ঘোষণা করছেন লিওনেল মেসিকে। বলা বাহুল্য যে, এসব কথার অধিকাংশই আবেগঘটিত। এই সময়ের আরেক সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে নিয়েও এমন তুলনা টানা হয়। তবে ব্রাজিলের বিশ্বকাপজয়ী তারকা রিভালদো নিজের প্রজন্মের সেরাদের সঙ্গে মেসি, রোনালদোর তুলনা টানতেই রাজী নন।

রিভালদো নিজে মেসির বিরাট ভক্ত, তবে মনে করেন এখনও ম্যারাডোনা হয়ে উঠতে পারেননি মেসি। রিভালদোর মতে, ক্লাবের হয়ে মেসির সাফল্যের কোনো গুরুত্বই নেই তার দেশের সমর্থকদের কাছে। তাদের কাছে বিশ্বকাপ জয়টাই আসল। এক সাক্ষাৎকারে ব্রাজিলের একসময়ের এই মহাতারকা বলেন, ‘বার্সেলোনার হয়ে অনেক সাফল্য পেয়েছে মেসি। তবে বিশ্বকাপ না জেতা পর্যন্ত তার দেশবাসীর কাছে ম্যারাডোনার কাছাকাছি মর্যাদা সে পবে না।

১৯৮৬ সালে ম্যারাডোনার নেতৃত্বে বিশ্বকাপ জেতার পর আর এই ট্রফি জয়ের স্বাদ পাননি আর্জন্টিনা। গত আসরেও জার্মানির কাছে ফাইনালে হেরে রানার্সআপ হতে হয়েছে। আসন্ন রাশিয়া বিশ্বকাপই মেসির ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ। রিভালদোর মতে, এই শেষ সুযোগ কাজে লাগাতে না পারলে দেশবাসীর কাছে কিংবদন্তি স্বীকৃতি পাবেন না মেসি। তবে মেসি ও আর্জেন্টিনার ফর্ম দেখে তিনি তাদেরকে ফেবারিটের তালিকাতেই রেখেছেন। কথার খেলা শেষে এবার মাঠের খেলা শুরুর অপেক্ষা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*